কিভাবে একটি নতুন ইউটিউব চ্যানেল খুলবেন?(প্রফেশনাল youtube চ্যানেল খুলুন সহজে)

একাবিংশ শতাব্দীতে ইন্টারনেট Revolution এসেছে গোটা দুনিয়া জুড়ে।এরমধ্যে ইউটিউব একটা বড়ো ভূমিকা পালন করে।আজকে কোটিকোটি মানুষ ইউটিউব এ ভিডিও দেখেন,তারজন্য বহু লোকের YouTube এ চ্যানেল খুলে আয় করার রাস্তা খুলেছে।সেরকম আপনি যদি অনলাইন থেকে আয় পেতে চান তাহলে ইউটিউব চ্যানেল খোলা একটি লাভজনক আইডিয়া।তবে হয়তো অনেকেই জানেননা কিভাবে নতুন ইউটিউব চ্যানেল খুলবেন?

চিন্তানেই,এই পোস্টে শুধু ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম গুলি নিয়েই কথা বলবো না,আপনি কিভাবে একটি প্রফেশনাল youtube চ্যানেল খুলবেন সেটা স্টেপ বাই স্টেপ বুঝানোর চেষ্টা করবো।তার আগে,ইউটিউব চ্যানেল সম্পর্কে কিছু তথ্য জেনেনিন।

ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম
YouTube চ্যানেল

YouTube চ্যানেল কি?

ইউটউব হচ্ছে এমন  প্লাটফর্ম যেখানে সারা বিশ্বে প্রত্যেকদিন ৫০০ কোটির বেশী ভিডিও দেখা হয়।প্রত্যেক মিনিটে প্রায় ৩০০ ঘন্টার ভিডিও আপলোড হয় এই প্লাটফর্মে।

এই বৃহৎ পরিমান ভিডিও আমার-আপনার মতো সাধারণ লোকেরা আপলোড করেছেন।এবং তারা লক্ষ্য লক্ষ্য টাকা আয় করছেন সেখান থেকে

ইউটিউব হচ্ছে গুগলের একটা প্রোডাক্ট সার্ভিস যেমন গুগল ম্যাপস,জিমেইল,গুগল ড্রাইভ এই গুলি সব গুগলের প্রোডাক্ট। গুগল youtube কে ২০০৬ সালে কিনে নেই এবং পাবলিকের জন্য ফ্রিতে ওপেন করেদেই।

আস্তে আস্তে সাধারণ মানুষ সেখানে ভিডিও আপলোড করতে থাকে।এইভাবে ধীরে ধীরে youtube এর নাম ছড়িয়ে পড়লে content creator দেড় ফেভারিট প্লাটফর্ম হয়ে দাঁড়ায় ইউটিউব।

youtube হচ্ছে দুনিয়ার সবথেকে বড়ো ভিডিও প্লাটফর্ম। 

আজ আমরা ইউটিউব থেকে নিউস,গান,কমেডী,শিক্ষা,ফ্লিম, প্রায় সব ধরণের ভিডিও দেখি।সেইসব ভিডিও কেউ না কেউ আপলোড করছে।

যেমন t-series, zeenews, এরা গান, নিউস ইত্যাদি ভিডিও আপলোড করেএবং সেই ভিডিও আপনি/আমি দেখি তার সঙ্গে এড ও দেখছি আর তাথেকে ওরা আয় করছে

মেন্কথা হচ্ছে ইউটিউব এ যদি ভিডিও আপলোড করতে চান তাহেল আপনার একটা একাউন্ট এর প্রয়োজন পড়বে, তবেই আপনি ভিডিও আপলোড করতে পারবেন।   

একটা নতুন ইউটিউব চ্যানেল খুলতে হলে আপনার একটা একাউন্ট এর দরকার পড়বে।যেমন ফেসবুকে পোস্ট করতে হলে আপনার একটা প্রোফাইল প্রয়োজন পরে,সেইরকম ইউটিউব এ ভিডিও পাবলিক এরসঙ্গে শেয়ার করতে চান তাহলে একটি প্রোফাইল বা একাউন্ট থাকা বাধতামুলুক

আশাকরি,আপনাদের ইউটউব চ্যানেল কিভাবে কাজ করে তার বেসিক ধারণা এসেছে।তাহলে চলুন এবার নিচে ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম গুলো বিস্তারিত দেখেনি।

আরও জানুন-

কিভাবে একটি প্রফেশনাল youtube চ্যানেল খুলবেন?জেনে নিন ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম গুলো স্টেপ বাই স্টেপ:-

আমরা এবার গোড়া থেকে স্টেপ বাই স্টেপ আলোচন করবো ,যারফলে একটি চ্যানেল তৈরী করতে আপনার কোনো সমস্যা না হয়

আপনি প্রত্যেকটা স্টেপ ঠিকঠাক ফলো করুন, তাহলে নিজেই কারো সাহায্য ছাড়া একটি একাউন্ট বানিয়ে ফেলবেন।

আপনাদের সুবিধার্তে স্ক্রিনশর্ট দ্বারা প্রত্যেকটা স্টেপ বুঝনোর চেষ্টা করবো।

১. গুগল এ একাউন্ট তৈরী করুন ?

ইউটউবে একটা চ্যানেল তৈরী করতে হলে আপনার একটা জিমেইল একউন্ট থাকা বাধ্যতামুলুক। আগেই বলেছি ইউটউব এবং জিমেইল হচ্ছে গুগলের প্রোডাক্ট তাই গুগলের একটি একাউন্ট থাকলে,

আপনি গুগলের সব প্রোডাক্ট বা সার্ভিসেস গুলি ব্যবহার করতে পারেন।

আশা করি আপনাদের সবার একটা গুগলের একউন্ট আছে।আরযদি না থাকে তাহলে একটা বানিয়ে নিন, Gmail এ একাউন্ট তৈরি করা খুব সহজ।

আপনার কম্পিউটার/মোবাইলে যে ব্রাউসার ব্যবহার করেন সেটা ওপেন করুন।

এবার গুগলে ওপেন করে ডান দিকে উপরে নীল রং এ sing.in লেখা আছে, সেখানে ক্লিক করুন।

একটা নতুন পেজ খুলবে আপনার gmail id থাকলে দিয়ে দিন।

আর না থাকলে নিচে Create account ক্লিক করুন।

একটা নতুন পেজ খুলবে সেখানে আপনার নাম,নতুন ইমেইল আইডি পাসওয়ার্ড দিয়ে ফর্মটি ফিলাপ করুন।

তার পর next এ ক্লিক করুন,এখানে আপনার মোবাইল নম্বর,লিঙ্গ,আর জন্ম তারিক টা দিয়েদিন,তারপর next এ ক্লিক করেদিন।

এবার আপনার মোবাইল নম্বর ভেরিফাই করার জন OTP সেন্ড করে দিন OTP গেলে ভেরিফাই করে গুগল terms & conditions একসেপ্ট করে দিন,তাহলে আপনার গুগলে একাউন্ট বা জিমেইল একাউন্ট খুলে যাবে।

২. ব্রাউসার দিয়ে ইউটউব খুলে sing in করুন  

আপনার কম্পিউটার এ ব্রাউসার ওপেন করুন সেখানে youtube.com লিখে সার্চ করুন।(ছবিতে দেখুন)

YouTube.com

এবার আপনি ইউটউব পেজে প্রবেশ করলে দেখুন ডান দিকে “sing in” বলে লেখা থাকবে।(ছবিতে দেখুন)

 নতুন ইউটিউব চ্যানেল

“sing in bottom” এ ক্লিক করুন একটা নতুন পেজ খুলে যাবে।সেখানে আপনি আগে যে গুগল একাউন্ট বা জিমেইল একাউন্ট টা তৈরী করেছেন তার ইনফরমেশন টা দিতে হবে।

তাই আপনি নিজের জিমেইল id ও পাসওয়ার্ড দিয়ে দিয়ে sing in হয়ে যান।

এখানে sing in ক্লিক করলে আপনার একাউন্ট সেভ হয়ে থাকবে যেহেতু আপনি আগেই একবার গুগল এ একাউন্ট খুলে রেখছেন তাই এবার শুধু id সিলেক্ট করে পাসওয়ার্ড টা দিয়েদিন।

(ঠিক যেমন ছবিতে your pasword লেখা আছে ওইখানে আপনি আপনার পাসওয়ার্ড লিখে sing in হয়ে যান)।

আরযদি মোবাইল থেকে জিমেইল id তৈরী করে থাকেন তাহলে আপনার জিমেইল id ও পাসোওয়ার্ড দুটোই লাগবে কম্পিউটার এ sing in করতে হলে।

কিভাবে জিমেইল আইডি খুলতে হয়

৩.নতুন ইউটিউব চ্যানেল তৈরী করুন

sing in হয়েগেলে আপনি পুনরাই ইউটউব এর পেজে ফিরে আসবেন তবে এখন যদি আপনি ডানদিকে দেখেন তাহলে sing.in লেখা থাকবেনা।

আর একটা গোল আইকন আপনার গুগল এ দেওয়া প্রোফাইল pic দেখাবে,ওই গোল আইকন এ ক্লিক করুন।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল বানাবো


গোল আইকন বা আপনার ইউটউব প্রোফাইল আইকন এ ক্লিক করলে আপনি অনেক options দেখতে পাবেন তারমধ্যে নিচে “settings” লেখা আছে ওই option টা ক্লিক করুন।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল বানাবো

এবার একটা নুতুন পেজ open হবে এখানে আপনি আপনার চ্যানেল এর ওভারভিউ দেখতে পাবেন

নিচে আপনি ইউটউব একাউন্ট ইনফরমেশন দেখতে পাবেন। (your youtube channel) তার ঠিক নিচে your channel নামে আপনি ৩ টে options দেখতে পাবেন,সেখানে “create a new chaannel“option এ ক্লিক করুন একটি ব্র্যান্ড একাউন্ট তৈরীর জন্য।

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব চ্যানেল খোলা

৪.একটি ব্র্যান্ড একাউন্ট তৈরি করুন 

এবার একটা নুতুন পেজ দেকতে পাবেন যেখানে লেখা থাকবে To Create a new channel,create a Brand Accountএখানে আপনার ইউটউব চ্যানেল এর নাম দিতে হবে।আমি উধরণসরূপ বুঝিয়ে দিচ্ছি-

আমার যেমন গুগল একউন্ট  হচ্ছে [email protected] এই id এর মাধ্যমে আমি ইউটউব অক্কোউন্টে login করবো।

এবং এই id তে আমি একটা ব্র্যান্ড একাউন্ট তৈরি করতে পারি এবং তার নাম দেব techjaman কারণ এই নামটাকে আমি পাবলিককে দেখতে চাই

সেরকম আপনি আপনার চ্যানেল, যে নামে পাবলিক কে দেখাত চান সেই নাম টা Brand Account name ওই বক্সে টাইপ করে create এ ক্লিক করুন

android মোবাইল দিয়ে youtube চ্যানেল

Congratulations আপনার ইউটউব চ্যানেল তৈরী হয়েগেছে।

এবার শুধু channel এর customize করলে,চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করার জন্য রেডি

হাঁ,একটা কথা খেয়াল রাখবেন  

আপনার ব্র্যান্ড একাউন্ট তৈরী হয়েগেলে হয়তো আপনার একাউন্টকে ভেরিফাই করার জন্য বলতে পারে sms বা voice call দ্বারা

যদি ভেরিফাই করার জন্য বলে তাহলে করেনিন নাহলে আমি নিচে কিভাবে ভেরিফাই করবেন সেটাবলে দিবো।

৫.Customize Your channel

আপনার ব্র্যান্ড একাউন্ট তৈরী হয়েগেলে আপনি চ্যানেল dashboard পেজে চলে আসবেন। যেখানে আপনি দুটো options দেখতে পাবেন Customize Channel & Youtube Studio

আপনার চ্যানেলকে সাজিয়ে নেওয়ার জন্য “Customize channel“এ ক্লিক করুন। 

মোবাইলে ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম

এবার আপনি একটা নুতুন পেজে চলে যাবেন এখানে আপনার চ্যানেল এর বেসিক সেটিং যথা চ্যানেল এর লোগো ব্যানার ওই গুলো চেঞ্জ করেনিতে পারবেন।

লোগো লাগানোর জন্য বাঁদিকে ছবিতে আপনার চ্যানেলএর যা নাম তার প্রথম অক্ষরটা দেখতে পাবেন।

যেমন আমার Techjaman চ্যানেল তাই T দেখাচ্ছে। লোগো বসাতে ওখানে pencil আইকন এ ক্লিক করুন।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করবেন মোবাইলে

edit channel icon একটা পেজ খুলেযাবে সেখানে edit option এ ক্লিক করুন।

আর একটা ট্যাবএ নুতুন পেজ খুলে যাবে। আপনার ব্র্যান্ড একাউন্ট এর ইনফরমেশন দেখতে পাবেন এই about me পেজে,এখানে চ্যানেল এর লোগো আপলোড option দেকতে পাবেন upload এ ক্লিক করুন।

 ইউটিউব চ্যানেল খুলতে কি কি লাগে

আমি আপনাদের সাজেস্ট করবো প্রোফাইল image size 800 x 800 pixels রাখবেন।

banner image- আপনার চ্যানেলে ব্যানার লাগানোর জন্য dashboard পুনরাই ফিরেযান।এবার বাঁদিকে দেখতে পাবেন আপনার লোগো বা প্রোফাইল ফটো show করছে আর ডানদিকে gray background দেখতে পাবেন এখানে আপনার চ্যানেল ব্যানার show করবে।

চ্যানেলে ব্যানার লাগানোর জন্য ডানদিকে কর্নারে pencil এ ক্লিক করুন,তারপর দ্বিতীয় option সিলেক্ট করুন “Edit channel art”.

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলতে হয়

একটা ছোটো পেজ খুলবে সেখানে আপনি ছবি আপলোড করার ৩টি option দেখতে পাবেন যেখানে আপনার ব্যানার আছে সেখান থেকে আপলোড করেত পারেন।

Note-চ্যানেল আর্ট তৈরী করার জন্য একটু কৈশলের প্রয়োজন।কেননা আপনি যে ইমেজ আপলোড করবেন সেটা শুধু পিসি বা ল্যাপটপে দেখতে ভালো লাগবে।

কিন্তু অন্য ডিভাইস গুলিতে যেন ভালো দেখাই সেরকম responsive ব্যানার তৈরী করতে হবে।

যেখানে সব ডিভাইস (মোবাইল,ট্যাবলেটে) ব্যানার ঠিক-ঠাক দেখতে পাওয়া যায়।সেজন্য গুগলের দেওয়া একটা নির্ধারিত মাপ আছে সেই অনুযাযী আপনাকে ব্যানার বানাতে হবে।(নিচে সেই মাপ দেওয়া হলো)

 ইউটিউব চ্যানেল সেটিং
                                                                         Source: Google

আপনি যদি ব্যানার তৈরী করতে না পারেন তাহলে এখানে click করে ইউটউব থেকে দেখে নিন।

৬.ইউটিউব চ্যানেল সেটিং

আপনার ব্যানার লাগানো হয়েগেলে পুনুরাই Customize channel পেজে ফিরে যান এবং ডানদিকে ব্যানার এর নিচে”setting icon”এ ক্লিক করুন।

 প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল

এখানে ক্লিক করলে আর একটা ছোট পেজ খুলবে সেখানে চ্যানেল সেটিং option দেখতে পাবেন তার মধ্যে নিচে “advanced settings”এ ক্লিক করুন।

 ইউটিউব চ্যানেল খোলা

মোবাইলে ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম

এখানে আপনার চ্যানেল এর বেসিক ইনফরমেশন গুলি দিতে হবে। যেমন চ্যানেল কোন কান্ট্রিতে অবস্থিত,নিজের চ্যানেল keyword দিবেন

যখন পাবলিক কোনো ভিডিও ইউটুবের মধ্যে সার্চ করবে তখন সেই keyword দ্বারা ইউটুবের বুঝতে সুবিধে হবে, এবং তাকে আপনার ভিডিও সাজেস্ট করতে।

এছাড়া আপনার চ্যানেল কোন বিষয়ে উপর সেটা বুঝা যায় কীওয়ার্ড দ্বারা।আপনি নিচে এডস এর সেটিং করতে পারেন যেখানে আপনি এডস ডিসএবল করতে পারেন।

AdWords account এর সঙ্গে যুক্ত করে আপনি আপনার ভিডিও কে ইউটউব এ প্রোমোটে করতে পারেন তার জন্য google এডস এ একাউন্ট খুলে নিতে পারেন।

আরো নিচে আপনার ওয়েবসাইট থাকলে লিংক করতে পারেন।Subscriber counts off করতে পারেন তাহলে কউ আপনার সাবস্ক্রাইব সংখ্যা দেখতে পাবে না।

Google Analytics থেকে আপনি ট্র্যাকিং করতে পারবেন আপনার সব কিছু।একগুলি ঠিক থাকে দেখে নিচে save করেদিন।

এবার back করে Customize channel পেজ চলে আসুন, ব্যানার এ নিচে “about“পেজ টা খুলন।

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব চ্যানেল খোলা

আপনি আপনার চ্যানেল এর সম্পর্কে বলতে পারেন ,তার ফলে পাবলিক এর আপনার চ্যানেল সম্পর্কে আরো ভালো ধারণা আসবে। 

ইউটিউব চ্যানেল সেটিং

channel description এ আপনার চ্যানেল সম্পর্কে লিখুন কি বিষয় নিয়ে চ্যানেল ইত্যাদি ইত্যাদি।তার নিচে ইমেইল দিতে ভুলবেন না কেউ আপনাকে কন্টাক্ট করতে চলে এই ইমেইল দ্বারা আপনাকে কনটাক্ট করবে।

আর একটা important কথা এখানে আপনার যে মেইল id তে আপনার ইউটউব চ্যানেল সেটা না দেওয়া ভালোহবে আমরা মতে।

তার নিচে আপনার location দিয়েদিন এবং সর্ব সেই আপনার সোশ্যাল একাউন্ট যথা ফেইসবুক পেজ, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম, ওয়েবসাইট গুলো এড করে দিন।

৭.কিভাবে ইউটউব এ ভিডিও আপলোড করবেন

ইউটউব ভিডিও আপলোড করার জন্য আপনাকে creator studio পেজ এ যেতে হবে তার জন্য আপনি  উপরে আপনার চ্যানেল এ প্রোফাইল পিকচার এ ক্লিক করুন এবং তারপর ”creator studio” option এ ক্লিক করুন।

ইউটিউব চ্যানেল চাই

এবার আপনি চ্যানেল dashboard এ চলে যাবেন এখানে আপনি আপনার ইউটউব এর সমস্ত ক্রিয়াকলাপ নজর রাখতে পাবেন,আপনার ভিডিও ভিউ,সাবস্ক্রাইব ইত্যাদি ইত্যাদি।

চ্যানেল এ ভিডিও আপলোড করার জন্য ২ option দেখতে পাবেন, একটা ডান দিকে উপরে আপনার প্রোফাইল আইকন এর পশে ”CREATE” লেখা থাকবে সেখানে ক্লিক করে UPLOAD VIDEO টে ক্লিক করুন।

ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায়

এবার একটা পেজ খুলবে সেখানে আপনি আপনার ভিডিও কে Drag and drop বা সিলেক্ট করে আপলোড করতে পারেন।

মোবাইলে ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম

       

১০০% হয়ে গেলে Title,Description,Thumbnail,Tags দিতে ভুলবেন না।এই ভাবে আপনি রেগুলার ভিডিও আপলোড করতে থাকুন আপনার ইউটুবে ১০০০ সাবস্ক্রাইব এবং ৪০০০ ঘন্টা watchtime হয়ে গেলে আপনি eligible হবেন ইউটউব Partner Program এপলাই করার জন্য।তার পর  monetization on হয়ে গেলে আপনার ইউটউব থেকে আয় এর রাস্তা খুলে যাবে।

Also read

৮.কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল ভেরিফাই করবেন 

আপনার চ্যানেল যদি ভেরিফাই এর জন্য sms বা ভয়েস call না আসে তাহলে আপনাকে নিজেই চ্যানেল ভেরিফাই করে নিতে হবে তাই youtube.com লিখে পেজ টা খুলুন গুগল এ।তার পর ডানদিকে প্রোফাইল আইকন এ ক্লিক করে ”settings” এ ক্লিক করুন।

ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায়

এবার সেই আগের মতো নিচে চলে যান এবং ”channel ststus and features”এ ক্লিক করেন।  

নতুন ইউটিউব চ্যানেল

একটা নুতুন পেজ খুলবে সেখানে আপনার চ্যানেল লোগো বা প্রোফাইল পিকচার দেকতে পাবেন তার পশে ”verify”বলে লেখা আছে ওইখানে ক্লিক করুন।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল ভেরিফাই করবেন

ওখানে ক্লিক করার পরে আর একটা পেজ খুলে যাবে account verification এখানে আপনি আপনার মোবাইল নম্বর টিপে call বা text করে ভেরিফিকেশন এর জন্য send করে দিন।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল ভেরিফাই করবেন

একটা otp যাবে আপনার মোবাইল এ সেটা দিয়ে দিলেই আপনার চ্যানেল verify হয়ে যাবে।

একটা কথা মনে রাখবেন আপনার ব্র্যান্ড একাউন্ট একটা আলাদা একাউন্ট আর আপনার google একাউন্ট আলাদা এটা সুইচ করা খুব সহজ।

ইউটউব প্রোফাইল আইকন এ ক্লিক করলে অনেক গুলো অপসন দেখতে পাবে ভিডিও আপলোড করতে হলে ”youtub studio” তে যেতে হবে এবং একাউন্ট switch করতে হলে ”switch account” এ ক্লিক করে পাল্টে নিন।  

ইউটিউব চ্যানেল সেটিং

 

আসা করি বন্দুরা,আপনারা যদি এই স্টেপ গুলো ভালো ভাবে ফলো করেন একটা নতুন ইউটিউব চ্যানেল খুলতে কোনো সমস্যা হবে না।

এছাড়া আপনারা ইউটউব থেকে ও সাহায্য নিতে পারেন ওখানে অনেক গুলো ভিডিও পেয়ে যাবেন যদি কোথাও কোনো সমস্যা হয় চ্যানেল বানাতে।তাছাড়া আপনাদের কোরকম সমস্যা বা জিগ্গাসা থাকলে নিচে কোমেন্ট করেন আমি রেপ্লায় দেয়ার চেষ্টা করবো।   

আরো পরুন-

Subscribe
Notify of
guest
15 Comments
Oldest
Newest Most Voted
Inline Feedbacks
View all comments
Pro Bangali
April 27, 2020 8:45 PM

খুব সহজভাবে বুঝলাম কিভাবে ইউটিউব এ চ্যানেল খুলব।ধন্যবাদ

Ahmed Noyon
Ahmed Noyon
May 19, 2020 5:35 AM

Thank you .. I hope it works for me..

sangit Bhowmik
sangit Bhowmik
June 11, 2020 12:07 PM

অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাই।

মোঃ মাসুদ রানা
মোঃ মাসুদ রানা
June 16, 2020 3:53 PM

উক্ত আর্টিকেলটি পড়ে অনেক উপকৃত হলাম। ধন্যবাদ ভাইজান

Howa bibi
July 12, 2020 10:01 PM

like

মোঃ ম&
মোঃ ম&
August 16, 2020 7:05 PM

উক্ত আর্টিকেলটি পড়ে অনেক উপকৃত হলাম। ধন্যবাদ ভাইজান

Mohima Islam
March 22, 2021 7:06 PM
অনেক ধন্যবাদ
Raziaa islam
Raziaa islam
April 21, 2021 5:34 AM

create a new channel option to pai na

15
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x
Share via
Copy link