গুগল ম্যাপ থেকে আয় করার নিয়ম?

গুগল ম্যাপ থেকে আয়:-বন্ধুরা,আমরা ফিরে এসেছি একটি ইন্টারেস্টিং আর্টিকেল গুগল ম্যাপ app এর মাধম্যে টাকা আর্নিং করার মাধ্যম সম্পর্কে জানতে।আশাকরি,আপনারা সবাই অবগত গুগল ম্যাপ কিভাবে আমাদের দৈনিন্দ জীবনে সহয়তা করে।কিন্তু আপনি কি জানেন এই ম্যাপে আপনার একটু অবদানে কিছু আর্নিং আসতে পরে।আমরা এই আর্টিকেলে সেই বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো।

গুগল ম্যাপ থেকে আয়

ফ্রেন্ডস গুগল ম্যাপস একটি খুবি গুরুত্বপূর্ণ টুল,যেটি আমাদের জানা-অজানা পথ দেখাতে সাহায্য করে।এই টুলটি বিশ্বজুড়ে কোটি কোটি লোকে ব্যবহার করেন।আর যদি আপনার কাছে এন্ড্রোইড ফোন থাকে তাহলে আপনার ফোনেই এই গুগল ম্যাপ এর app মুজুদ রয়েছে।

আমার অনেকেই দৈনিন্দ দিনে গুগল ম্যাপসকে কাজে নিয়েথাকি,এবার প্রশ্ন হলো এই ম্যাপ থেকে কি কোনো ইনকাম করার রাস্তা রয়েছে?

জিহাঁ,Google Maps এর মাধ্যমে আর্নিং করতে পারবেন।

ফ্রেন্ডস,গুগল ম্যাপস এর মধ্যে একটি জব করা যায় যার নাম Local Guide,এই আর্টিকেলে Local Guide জব কি ও গুগল Local Guide জব করলে কি কি বেনিফিট বা সুবিধে দিবে সেই সম্পর্কে জানবো।

গুগল ম্যাপ থেকে আয়

গুগল ম্যাপস থেকে আয় করার একটি বিশেষ মাধ্যম হচ্ছে Local Guide,আপনি গুগল এর সার্ভিসে যুক্ত হয়ে টাকা ও পয়েন্ট আর্নিং করতে পারবেন।নিচে এই আর্টিকেলটি সুন্দর ভাবে পড়েনিন কেননা নিচে স্টেপ বায় স্টেপ online rewards আর্নিং করার বর্ণনা দিবো।

Local Guide জব কি:-

লোকাল গাইড হচ্ছে গুগল ম্যাপস এর একটি স্পেশাল প্রোগ্রাম যেটি যেকোনো লোকে join হতে পারে।এই প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করে আপনি ভালো পরিমান money আর্নিং করতে পারবেন।লোকাল গাইড এর কাজ হচ্ছে বিভিন্ন জায়গাই ভিসিট করে সেখানকার তথ্যগুলি গুগল ম্যাপএর মধ্যে সাবমিট করা।

যেমন কোনো নুতুন রেস্টুরেন্ট,হোটেল বা শপে ভিসিট করলে তার রিভিউ বা রেটিং দিতে হবে,এছাড়া কোনো নুতুন ঠিকনা ম্যাপ এরমধ্যে অ্যাড ,বিভিন্ন জায়গার ফটো আপলোড এধরণের টাস্ক গুলি করতে হবে।

এখানে আপনি যত বেশি এই টাস্ক গুলি কমপ্লিট করবেন ততবেশি money আর্নিং করতে সফলতা পাবেন।

আরো পড়ুন –

Local Guide জব থেকে আয় করার নিয়ম :-

  • Local Guide জব করতে হলে একটি স্মার্টফোন থাকা বাধ্যতামূলক।এবার সেই ফোনে গুগল ম্যাপ এর app ইনস্টল করুন।
  • যদি আগেথেকে ইনস্টল হয়ে থাকে তাহলে সেই app টি প্লেস্টোরে গিয়ে আপডেট করেনিন।
  • নেক্সট – এবার গুগল ম্যাপস ওপেন করুন।
  • Google maps ওপেন হলে “Contribution” অপশনের মধ্যে যান।
গুগল ম্যাপস থেকে আয়
  • এবার এরমধ্যে আপনি profile অপসন দেখতে পাবেন।
গুগল ম্যাপ থেকে ইনকাম
  • Next “view your profile” অপসন ওপেন করুন।
গুগল ম্যাপ আয়

এখানে আপনি নিজের প্রোফাইল এডিট করতে পারবেনও বায়োতে নিজের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারেন।এছাড়া লোকাল গাইড কোন লেভেলে আছেন,কত পয়েন্ট পেয়েছেন এগুলি দেখা যায়।

আবার কতগুলি কান্ট্রিবিউশন করেছেন যেমন-রিভিউ,কমেন্ট ফটো আপলোড এইসব এই প্রোফাইল সেকশনে পেয়েযাবেন।

ফ্রেন্ডস এই স্টেপ গুলি ফলো করে লোকাল গাইড জবের মধ্যে successfully join হয়েযান।এবার লোকাল গাইড জব করে টাকা আয় করতে আপনাকে বেশি বেশি পয়েন্ট আর্নিং করতে হবে।

আরও পড়ুন- মোবাইলে আয় করার ৭ টি সহজ উপায় ?

কীভাবে গুগল ম্যাপে পয়েন্ট কামিয়ে রিওয়ার্ড আর্নিং করবেন?

গুগল ম্যাপস থেকে পয়েন্ট আর্ন করার অনেক গুলো মেথড আছে,আপনি খুব সিম্পল সিম্পল টাস্ক এর পরিবর্তে বহু পয়েন্ট সংগ্রহ করতে পারবেন।নিচে কয়েকটি মেথড নিচে দেওয়া হলো-

  • Review (রিভিউ):- আপনি লাস্ট যে জায়গা বা স্থান গুলি ভিসিট করেছেন তার সম্পর্কে গুগল ম্যাপে আপনার রিভিউ বা মতামত চাইবে ,আপনি এই প্রত্যেক রিভিউ এর পরিবর্তে ১০ পয়েন্ট পাবেন।
  • Rating: (রেটিং) :- আপনি লাস্ট যে জায়গা গুলি ভিসিট করেছেন সেগুলির রেটিং দিন,ভালো হলে ৫ আর খারাপ হলে তার কম রেটিং দিয়ে মতামত প্রকাশ করুন।
  • Photo:- কোনো নুতুন প্লেসে গেলে তার ছবি গুগল ম্যাপ এ আপলোড করুন।
  • Video:- অরজিনাল নুতুন প্লেসের ভিডিও আপলোড করে পয়েন্ট সংগ্রহ করুন।
  • Respond to Q&A: maps এরমধ্যে question করা প্রশ্ন গুলির উত্তর দিয়ে পয়েন্ট আর্নিং করুন।
  • Edits: maps এরমধ্যে সংসোধন করে পয়েন্ট আর্নিং করুন।
  • Place Added: নুতুন জায়গার নাম গুলি ম্যাপে অ্যাড করে পয়েন্ট আর্নিং করুন।

Google Maps Points Table

আপনি গুগল ম্যাপ এরমধ্যে যতবেশি পয়েন্ট কালেক্ট করবেন আপনার লেবেল সেই ভাবে বাড়তে থাকবে।Local Guide জবে join হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আপনি লেভেল 0 থেকে স্টার্ট হবে।

এবার অস্তে আস্তে পয়েন্ট আর্নিং করলে ১ ও তারপর ২ এই ভাবে আপনার রাঙ্ক বাড়তে থাকবে একেবারে ১০ প্রজন্ত।২৫০ পয়েন্ট হলে আপনার রাঙ্ক লেভেল ৪ হবে এবং আপনি একটি ব্যাচ পাবেন।নিচে এই ব্যাচের চ্যাট লিস্ট দিলাম-

Local Guide Levels Table (Google Maps)

কিভাবে পয়েন্ট Redeem করে আর্নিং হবে?

গুগল গাইড থেকে আর্নিং পেতে আপনাকে একটু wait করতে হবে।এই প্লাটফর্মে আপনি যখন লেভেল ৪ এ পোঁছে যাবেন তখন কিছু রিওয়ার্ড পেতে শুরু করবেন।

এই রিওয়ার্ড আপনি কোন লেভেলে আছেন এবং কতগুলি পয়েন্ট করেছেন তার উপর নির্ভর করে।আপনার যে রকম রাঙ্ক হবে তার হিসেবে আপনি গুগলে বিভিন্ন নতুন অপরচুনিটি সুযোগ সুবিধে পাবেন।

যেমন- নতুন কিছু লঞ্চ হলে তার টেস্টিং এর সুযোগ গুলি পাবেন এছাড়া কোনো প্রেমিয়াম প্রোডাক্ট ফ্রী তে পাবেন এছাড়া আরো অনেক reward রিওয়ার্ড আছে যেগুলো আপনি কাজ করলে জেনেনিন।

বন্ধুরা,এতো গেলো reward এর কথা এখানে আপনাদের প্রশ্ন হতে পারে, কোনো রিয়েল মানি বা টাকা আর্ন করার সুযোগ আছে?

আরও পড়ুন-

গুগল ম্যাপস থেকে টাকা আর্নিং?

আপনাকে বলেদি,গুগল এখন অব্দি লোকাল গাইড কাজে টাকা দেই না।গুগল আপনাকে বিভিন্ন সুযোগ সুবিধে দিবে কিন্তু মানি বাবা টাকা দেবেনা।

তবে হ্যা আপনি এই ম্যাপকে কাজে লাগিয়ে আরও অন্য ভাবে আনিং করার রাস্তা খুঁজে নিতে পারেন।আপনি তার একটি পন্থা বলে দিচ্ছি।

আপনি গুগল ম্যাপস থেকে নিজের এলাকাই বিভিন্ন ধরণের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলো খোঁজ করুন যেগুলিতে কোন সোশ্যাল মিডিয়া বা ইন্টারনেটের মধ্যে প্রচার নেই।

ফ্র্যান্ডস,গুগল ম্যাপসে যে সকল ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের কোনো ওয়েবসাইট বা সোশ্যাল মিডিয়া পেজ নেয় তাদের কাছে যান।

সেইসব প্রতিষ্ঠানের কাছে সামান্য কিছু পারিশ্রমিক নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া প্রচার ও ওয়েবসাইট বানানোর পরামর্শ দিন।

আপনি এই ধরনের প্রচার গুলি করে একটা ভালো রকম আর্নিং করতে পারবেন।

আপনার যদি ইন্টারনেটে ডিজিটাল মার্কেটিং এর কোন স্কিল জানা থাকে যেমন ওয়েবসাইট তৈরী বা app তৈরী তাহলে এই কাজ গুলি অনায়াসে করতে পারবেন।

আবার আপনি যদি একজন সাধারণ ব্যক্তি হন এসব কাজের কোনো ধারণা নেই তাহলে চিন্তা নেই।

শুধু নিজের এলাকায় ডিজিটাল মার্কেটিং জানা আছে এরকম একটি লোককে হায়ার করুন এবং তার কাছে স্বল্প টাকা ব্যয় করে এই কাজগুলি করিয়ে নিন।

আপনি মিডিল ম্যান হিসেবে একটা ভালো পরিমাণে আয় করে নিতে পারবেন।

ফ্রেন্ডস ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে আপনি ইউটিউব ও গুগলের মধ্যে বহু আর্টিকেল পেয়ে যাবেন সেগুলি থেকে এই মার্কেটপ্লেস কিভাবে কাজ করে তার সম্পর্কে একটু জ্ঞান অর্জন করুন।

ফ্রেন্ডস, গুগল ম্যাপ থেকে আয় পেত একটু বুদ্ধি খাটিয়ে উপরের প্রেসেস ফলো করুন,আশাকরি আপনি সফল হবেন।

Share via
Copy link